Connect with us

টেকনোলজি

নগদ একাউন্ট খোলার পদ্ধতি

Published

on

নগদ একাউন্ট খোলার পদ্ধতি ২০২২

নগদ একাউন্ট খোলার পদ্ধতি ২০২২

নগদ একাউন্ট খোলার পদ্ধতি ২০২২

২০২২ সালের নতুন নিয়মে এখন থেকে ঘরে বসেই খোলা যাবে নগদ অ্যাকাউন্টনগদ বর্তমান সময়ে জনপ্রিয় একটি মোবাইল ব্যাংকিং সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে একটি। বর্তমানে যে কেউ চাইলেই সে বাংলাদেশের যেকোনো প্রান্তে বসে খুলে ফেলতে পারে নগদ অ্যাকাউন্ট। তারই সাথে উপভোগ করতে পারে নগদের দারুন সব সেবা। এখন আর নগদ অ্যাকাউন্ট খুলতে আপনাকে কোন এজেন্ট বা নগদ আফিসে যেতে হবে না। আমাদের দেখানো প্রক্রিয়ায় ঘরে বসেই খোলা যাবে নগদ অ্যাকাউন্ট। 

Advertisement

নগদ হচ্ছে ডাক বিভাগ দ্ধারা পরিচালিত ডিজিটাল মোবাইল ব্যাংকিং সেবা। যা বাংলাদেশ সরকারের অধীনে পরিচালিত হয়ে থাকে। বাংলাদেশ ডাক বিভাগ কর্তৃক ১১ অক্টোবর ২০১৮ সালে এই ডিজিটাল আর্থিক সেবা চালু করা হয়। ২০১৯ সালের ২৬ মার্চ, বাংলাদেশের ৪৯তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের মাধ্যমে এটি কার্যক্রম শুরু করে। তারপর থেকেই সকল সরকারি কাজে নগদের দ্ধারা টাকা পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়। তাই নগদ বলাই চলে অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠানের থেকে নিরাপদ। 

শিক্ষা : অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন ডাউনলোড , অনলাইন থেকে আইডি কার্ড সংগ্রহ করুন

Advertisement

এখন জানা যাক নগদ অ্যাকাউন্ট খুলতে কি কি জিনিসের প্রয়োজন- 

১. প্রথমত, আপনার কাছে একটি বাংলাদেশের যেকোনো সিম অপারেটরের নিবন্ধনকৃত একটি সচল সিম থাকতে হবে। 

২. আপনার কাছে একটি মোবাইল থাকতে হবে। বাটন মোবাইল বা স্মার্টফোনের যেকোনো একটি থাকলেই হবে। 

Advertisement

৩. আপনার কাছে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র থাকতে হবেস্মার্ট কার্ড বা সাধারন কার্ডের যেকোনো একটি থাকলেই হবে। 

৪. আপনি যদি স্মার্টফোন দিয়ে অ্যাকাউন্টটি খুলতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই নগদ অ্যাপটি আপনার মোবাইলে ডাউনলোড করতে হবে।

Advertisement

এই কিছু জিনিস আপনার কাছে থাকলেই আপনি খুলতে পারবেন একটি নগদ অ্যাকাউন্ট। 

নগদ অ্যাকাউন্ট খোলার পদ্ধতি

১. প্রথমত, আপনাকে নগদের মোবাইল অ্যাপটি ডাউনলোড করতে হবে। প্লে-স্টোর বা অ্যাপ-স্টোর থেকে।    

Advertisement

২. এখন আপনাকে আপনার মোবাইলের ফোন কল করার জায়গায় যেতে হবে। সেখানে গিয়ে আপনাকে একটি নাম্বার ডায়েল করতে হবে। *167# নাম্বারটিতে কল করতে হবে, আপনি যে সিম থেকে নগদ অ্যাকাউন্ট খুলতে চান। 

৩. নাম্বারটিতে ডায়েল করার পর আপনার সামনে নগদ থেকে বলবে আপনার নগদ অ্যাকাউন্ট এর পিন দিতে হবে। যা ৪ ডিজিটের সংখ্যার মধ্যে হতে হবে। এটাকে আপনাকে সব সময় মনে রাখতে হবে। তারই সাথে পিনটি একটু কঠিন করে দিতে হবে, যার ফলে কোন আসাধু বাক্তি সহজেই আপনার অ্যাকাউন্টএ না ঢুকতে পারে। 

Advertisement

যেসকল পিন এড়িয়ে চলবেন- 0000,1111,2222,1234,4321,1000। 

তারই সাথে পিন নাম্বারটি ৪ টি ভিন্ন সংখ্যা ব্যবহার করে দিলে আরও ভালো হয়। অবশ্যই পিন নাম্বারটি কারর সাথে শেয়ার করা থেকে বিরত থাকবেন। 

Advertisement

৪. এখন আপনার কাছে জানতে চাওয়া হবে, আপনি কি নগদ অ্যাকাউন্ট এর টাকা থেকে কোন প্রকার মুনাফা বা ইন্টারেস্ট নিতে চাচ্ছেন কিনা। যদি আপনি মুনাফা নিতে চান আপনি দিবেন Yes বা 1 আর যদি না নিতে চান তাহলে দিবেন No বা 2। তারপর সেন্ড এ ক্লিক করবেন। 

Advertisement

৫. এখন আপনার কাছে দেখাবে আপনার নগদ অ্যাকাউন্টটি সফলভাবে পিন সেট আপ হয়েছে। এখন আপনি ওই লেখাটি কেটে দিবেন। তার কিছু সময়ের মধ্যে আপনার কাছে মেসেজ আসবে যেখানে আপনাকে নগদ অ্যাকাউন্ট এর খোলার অফিসিয়াল প্রক্রিয়াগুলো পূর্ণ করতে বলবে।   

৬. এখন আপনার ডাউনলোডকৃত নগদ অ্যাপটি মধ্যে প্রবেশ করতে হবে। তারপর আপনাকে আপনার নগদ অ্যাকাউন্ট এর মোবাইল নাম্বারটি দিতে হবে। তারপর পরবর্তী অপশনটি ক্লিক করতে হবে। 

Advertisement

৭. এখন আপনার কাছে নগদ পিন নাম্বারটি জানতে চাইবে। যা আপনি প্রথমেই দিয়েছিলেন। 

৮. এখন সাথে সাথে আপনার মোবাইলে একটি ভেরিফিকেশন কোড আসবে, যা আপনাকে নগদ অ্যাপে লিখতে হবে, কিছু ক্ষেত্রে অটোমেটিকভাবেই হয়ে যাবে। 

Advertisement

৯. এখন আপনি সফলভাবে নগদে প্রবেশ করে ফেলবেন। এখন আপনাকে বাকি আফিসিয়াল কাজগুলো পূর্ণ করতে হবে। আপনার নগদ অ্যাপ এ প্রবেশের পর একদম নিচে ৪টি অপশন আছে, তারই মধ্যে ডানদিকে যে আমার নগদ অপশনটি আছে সেখানে ক্লিক করতে হবে। 

১০. এখন এখানে আপনি একটি জায়গায় দেখতে পারবেন ‘’কে ওয়াই সি পুনরায় জমা দিন”

Advertisement

এখানে ক্লিক করতে হবে। তারপর আপনাকে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র এর সামনে ছবি এবং পিছনের ছবি এই দুইটি দিতে হবে। দেওয়ার পর পরবর্তী অপশনটিতে ক্লিক করতে হবে। 

১১. এখন আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র এর সকল তথ্য আপনার সামনে চলে আসবে। যা চেক করে পরবর্তী ধাপগুলো আপনি পূর্ণ করবেন। এখন আপনি আপনার কিছু ব্যক্তিগত তথ্য সম্পর্কে জানতে চাইবে, তা দিয়ে দিবেন। 

Advertisement

১২. এখন আপনার ছবি তারা নিতে চাইবে, তাই যার এন আই ডি তাকেই ছবিটি দিতে হবে। এখন আপনাকে আপনার চোখের চিহ্ন নেওয়ার জন্য চোখের পলক বার বার ফেলতে হবে। এখন আপনার অনন্যা কিছু ডকুমেন্ট চাইবে সেটি স্কিপ করবেন, ফলে দেয়া লাগবে না। এখন আপনাকে নগদের ভার্চুয়াল সাক্ষর দিতে হবে। 

এই নিয়মগুলো পূর্ণ করার পর সফলভাবে আপনার অ্যাকাউন্টটি খুলে যাবে। এখন আপনি চাইলে সহজেই লেনদেন করতে পারবেন।  

Advertisement

এখন জানা যাক নগদ অ্যাকাউন্ট চেক করার পদ্ধতি- 

১. আপনাকে আপনার মোবাইলের কল অপশন থেকে *167# ডায়েল করতে হবে।

Advertisement

২. 7 লিখে Send করে My Nagad অপশনে প্রবেশ করুন।

৩. 1 লিখে send করে Balance Inquiry অপশনে প্রবেশ করুন

Advertisement

৪. এরপর আপনার নগদ একাউন্টের পিন কোড দিয়ে send করুন

৫. সঠিক পিন প্রদান করলে ফোনের স্ক্রিনে আপনার নগদ একাউন্ট এর ব্যালেন্স দেখতে পাবেন।

Advertisement

তাছাড়াও আপনি অ্যাপের মাধ্যমে তথ্য জানতে পারবেন- 

১. আপনি নগদ অ্যাপ এ প্রবেশ করুন। 

Advertisement

২. নগদ অ্যাকাউন্ট এর পিন নাম্বারটি দিন। তারপর সেন্ড বাটনটি তে ক্লিক করুন।

৩. নির্ভুল পিন দিয়ে আপনি অ্যাপএর মূল জায়গায় প্রবেশ করুন। 

Advertisement

৪. এখন উপরের “ব্যালেন্স জানতে ট্যাপ করুন” বাটনে ক্লিক করুন। এখানেই বিস্তারিতও তথ্য জানতে পারবেন। 

নগদ অ্যাকাউন্ট ব্যবহারের কোন সমস্যার হলে যোগাযোগ করুন- 

Advertisement

১৬১৬৭ নাম্বারে কল করে যোগাযোগ করলে আপনাকে তারা সমাধান করে দিবে। ফলে আপনি আপনার সমস্যা সমাধান সহজেই করে ফেলতে পারবেন। তারই সাথে আপনার যদি কোন সাধারণ কোন জিজ্ঞাসা থাকে তাহলে নগদ ওয়েবসাইট চেক করতে পারেন। Nogod Website 

নগদ একাউন্ট নিবন্ধন বা রেজিস্ট্রেশন

নগদ একাউন্ট তৈরীর পুর্বে প্রত্যেক ব্যবহারকারীর জন্য কিছু শর্ত প্রযোজ্য করে দেওয়া হয়েছে। নগদ একাউন্ট নিবন্ধন বা রেজিস্ট্রেশন এর ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য যেসব শর্তাবলি প্রযোজ্য, সেগুলো হলোঃ

Advertisement
  1. দেশে প্রচলিত আইন ও ডাক বিভাগ প্রচলিত ধারাসমুহ অনুসরণ করে নগদ এর কার্যক্রম চালিত হয়। প্রত্যেক নগদ গ্রাহককে এসব নীতিমালা বাধ্যতামূলকভাবে মানতে হবে।                                                                           
  2. ভুল নগদ নাম্বার প্রদান কোনো ধরনের আর্থিক ক্ষতির স্বীকার হলে, তার দায় নগদ বহন করবে না।
  3.  নগদ একাউন্টে লেনদেনের ক্ষেত্রে চার্জসমুহ সকল গ্রাহকের ক্ষেত্রে বাধ্যতামূলক। পর্যাপ্ত ব্যালেন্সের অভাবে লেনদেন সম্পন্ন না হলে তার দায়ভার সম্পূর্ণ গ্রাহকের।
  4. ক্যাশ ইন/ ক্যাশ আউট/ পেমেন্ট ইত্যাদি ক্ষেত্রে গ্রাহককেই তার লেনদেনের গ্রহণযোগ্যতা যাচাই করতে হবে। এসব সম্পর্কিত কোনো অভিযোগ এর দায় নগদ বহন করবে না।
  5. নগদ ব্যবহার করে লেনদনকালীন প্রাপক ও প্রেরিত অর্থের যথার্থতা নিশ্চিত এর দায়িত্ব ব্যবহারকারীর। ভুল তথ্য প্রদানে কোনো ধরনের ক্ষতির সম্মুখীন হলে কিংবা কোনো ধরনের প্রতারণার স্বীকার হলে, নগদ তার দায়ভার বহন করবে না।
  6. নগদ ব্যবহার সম্পর্কিত মূল্য ও ব্যয় নিয়মানুযায়ী একাউন্ট থেকে সময়মত কেটে নেওয়া হবে।
  7. মানি লন্ডারিং প্রতিরোধ আইন-২০১২, সন্ত্রাস বিরোধী আইন-২০০৯, বাংলাদেশ ডাক বিভাগ কর্তৃক জারিকৃত নীতিমালা অনুযায়ী, গ্রাহক তার নগদ সম্পর্কিত তথ্য চাহিবামাত্র নগদকে প্রদানে বাধ্য।
  8. গ্রাহকের একাউন্ট ও লেনদেন সংক্রান্ত তথ্যের গোপনীয়তা বজায় রাখবে নগদ৷ তবে আদালতের আদেশ অথবা আইন অনুযায়ী অনুমোদিত কোন ব্যক্তির প্রয়োজনে তথ্য প্রকাশ বা প্রদান করতে পারবে নগদ।
  9. একজন গ্রাহক তার নগদ একাউন্ট এর পিন নাম্বার কখনোই কারো কাছেই কোনো অবস্থাতেই প্রকাশ করতে পারবেন না। পিন নাম্বার এর গোপনীয়তা নষ্টের ফলে কোনো ধরনের আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হলে তার দায়ভার সম্পূর্ণভাবে ব্যবহারকারীর নিজের।

এই সকল পদ্ধতিগুলো মেনে আপনি সহজেই নগদ অ্যাকাউন্ট খুলতে পারেন তারই সাথে আপনার অ্যাকাউন্ট কে নিরাপদ রাখতে পারেন। সব সময় নগদের নিয়মাবলীগুলো মেনে চলবেন। নগদ কখন আপনার থেকে কোন প্রকার পিন নাম্বার বা ভেরিফিকেশন কোড জানতে চাইবেনা। 

Continue Reading
Advertisement
1 Comment

1 Comment

  1. Pingback: উপায় মোবাইল ব্যাংকিং কোড খোলার নিয়ম এর সুবিধা 2022 Upay

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Advertisement

Trending