Connect with us

টেকনোলজি

ওয়েবসাইট কি ও কেন

Published

on

ওয়েবসাইট কি ও কেন

ওয়েবসাইট কি ও কেন

ওয়েবসাইট কি

ওয়েবসাইট কি বর্তমান সময়ে সকলেরই একটি জানার বিষয়। কিন্তু তাও অনেকে জানেনা ওয়েবসাইটি আসলে কি? কিভাবে একটি ওয়েবসাইট তৈরি করা হয়। ওয়েবসাইট হচ্ছে এমন একটি জিনিস যার দ্ধারা আপনার বিজনেসকে অনলাইনের উপস্থিতি বাড়িয়ে তুলতে পারেন। যার ফলে আপনি চাইলেই অনেক কিছু অনলাইনের মধ্যমে বিক্রি করতে পারেন। যার ফলে আপনার একটি ভালো অংকের লাভ ঘরে বসেই ওয়েবসাইট দ্ধারা হয় যাবে। ওয়েবসাইট শুধু মাত্র যে কোন কিছু বিক্রির জন্য তা কিন্তু নয়। ওয়েবসাইট দ্ধারা নিজের পরিচিত বৃদ্ধি করা যায়। নিজের কোম্পানির প্রচার করতে ওয়েবসাইট ব্যবহার হয়ে থাকে। একটি ওয়েবসাইট দ্ধারা বিভিন্ন ব্লগ কন্টেন্ট বা নিউজ কন্টেন্টও তুলে ধরা যায়। তারই সাথে একটি ওয়েবসাইট থাকলে সেই সাইট দ্ধারা ভালো অংকের টাকাও উপার্জন করা যায়। সে টাকা উপার্জনের মাধ্যমগুলো অনেক রয়েছে। 

Advertisement

আপনি আরো জানতে পারেন: মুভি ডাউনলোড সাইট

ওয়েবসাইট কিভাবে তৈরি করতে হয়? 

একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে হলে প্রথমেই আপনাকে কিছুটা টাকা খরচ করতে হবে। কেননা একটি ওয়েবসাইট চলতে হয় গুরুত্বপূর্ণ দুইটি জিনিসের প্রয়োজন পরে যার মধ্যে একটি হলো একটি ডোমেইন নাম আরেকটি হোস্টিং। এই দুইটি জিনিসের দাম বা মূল্য পুরোপুরি ভিন্ন ভিন্ন। একটি ডোমেইন নাম হচ্ছে আপনার সাইটের যে একটি নাম থাকবে সেই নামটিকে কিনে নেয়া। আপনাকে অবশ্যই আপনার সাইটে নামটি আগে থেকে বেছে নিতে হবে কেননা একটি ডোমেইন নামে পৃথিবীতে একটি ওয়েবসাইটই থাকতে পারবে। যেমনঃ facebook.com এই নামটিতে আর কোন ডোমেইন নেয়া সম্ভব না। যার ফলে একটি নামে সারা পৃথিবীএ একটি ওয়েবসাইট থাকতে পারবে। ডোমেন নামটি সবসময় ভিন্ন ভিন্ন হয়। তারই সাথে আপনার ডোমেন নামটি প্রত্যেক বছর রিনিউ করতে হয়। একবার কিনলেও আপনাকে বছর একটি সময়ে রিনিউ মূল্য দিতে হবে। তারই সাথে আপনার সাইটটিকে লাইভ রাখতে একটি হোস্টিং কিনতে হবে। যাকে বলা যায় একটি সব সময়ের চালু থাকা কম্পিউটার। যার জন্য আপনাকে মাসিক বা বছর একটি টাকা দিতে হবে। যার মূল্য নির্ধারিত নয়। ১০০ টাকা মাসিক থেকে ১০০০০ টাকারও হোস্টিং সার্ভিস আছে। 

Advertisement

ব্যবসার জন্য ওয়েবসাইট কেন প্রয়োজন? 

একটি ওয়েবসাইট চাইলেই যেকোনো ব্যবসার মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারে। আপনার ব্যবসা যদি অনলাইন বিষয়ক না হয়েও থাকে তার পরেও আপনি যদি একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে রাখেন এবং সেই ওয়েবসাইটটিকে সুন্দুর করে গুছিয়ে নিতে পারেন আপনার কোম্পানির প্রতি মানুষের মূল্য বেড়েই যাবে। প্রত্যেক কোম্পানিই চাইবে তার কোম্পানি ব্র্যান্ড মূল্য বৃদ্ধি পাক। একটি ওয়েবসাইট একটি ব্যবসার মোড় সহজেই ঘুরিয়ে দিতে পারে। একটি সুন্দর ওয়েবসাইট তৈরি করে ২০ হাজার টাকা থেকে ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত লেগে থাকে। আপনার টাকার অংক নির্ভর করে কত সুন্দর একটি ওয়েবসাইট আপনি তৈরি করাবেন তার উপর। যত সুন্দর ওয়েবসাইট তোত বেশি আপনি কাস্তমার আপনি পাবেন। ওয়েবসাইটগুলো আপনি তৈরি করতে পারেন বাংলাদেশের নামি দামি ডিজিটাল মার্কেটিং কোম্পানি বা এজেন্সির দ্ধারা। 

ওয়েবসাইট কত প্রকার? 

একটি ওয়েবসাইট ভিন্ন ভিন্ন ধরনের বা ভিন্ন কাজে ব্যবহার হয়ে থাকে। কিছু ওয়েবসাইট থাকে যেখানে বিভিন্ন নিউজ দেয়া হয় আবার কিছু ওয়েবসাইটে কিছু জরুরি ব্লগ কন্টেন্ট দেয়া হয়। সেরকমই, বিভিন্ন ওয়েবসাইট দ্ধারা বাস, ট্রেন, প্লেন এর টিকিটও কাটা যায়। তারই সাথে বিভিন্ন নির্দেশনা দেয়াও ওয়েবসাইট আছে। নিজের ব্যাক্তি কত ব্যবহারের জন্য ওয়েবসাইট আছে। তারই সাথে কোম্পানির পরিচিতি তৈরি করার জন্য ওয়েবসাইট আছে। এই সকল সাইটের কাজই ভিন্ন রকম হয়ে থাকে। যার একটি কাজের সাথে আরেকটির কোন মিল পাওয়া যায় না। বেচা কেনা করার জন্য জেই সাইট তাকে ই-কমার্স সাইট বলা হয়ে থাকে। যেই সাইটে আপনার বিভিন্ন প্রোডাক্ট সাজিয়ে রাখা হবে সেখান থেকে আপনাকে কিনার সুযোগ করে দেয়া হবে। এই সাইটটি তৈরি করতে বাজেট বেশি রাখা প্রয়োজন। বলতে গেলে প্রতেকটি সাইট নির্দিষ্ট নিশ বা বিষয়ে কাজ করে থাকে। 

Advertisement

ওয়েবসাইট দ্ধারা আয় করা সম্ভব? 

আসলে ভাবতে অবাক লাগলেও একটি ওয়েবসাইট দ্ধারা বহুভাবেই আয় করা সম্ভব। আয়ের উৎসগুলো বিভিন্ন রয়েছে। তার মধ্যে গুগুল অ্যাড অন্যতম। গুগুলের দ্ধারা পরিচালিত অ্যাডগুলো গুগুল আপনার ওয়েবসাইটে দেখাবে, সেই দেখানোর দ্ধারা একটি অংশ টাকা গুগুল আপনাকে দিবে। যার কিছু আপনি পাবেন আর কিছু গুগুল পাবে। কিন্তু শুরুতে এই আয় করা সম্ভব না। কিছু দিন পোস্ট বা লেখা দেয়া পর এই আয় করা সম্ভব। 

আরেকটি আয় করার উপায় হচ্ছে কোন কিছু বিক্রি করার দ্ধারা। আপনার ওয়েবসাইট যদি ই-কমার্স সাইট হয়ে থাকে যেখানে বিভিন্ন প্রোডাক্ট বিক্রি করা হয় সেই খানে অনলাইন প্রোডাক্ট বিক্রি করে আয় করা সম্ভব। যেখানে একটু প্রতিযোগিতা থাকলেও ভালো প্রফিট পাওয়া যায়। 

Advertisement

তারই সাথে অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করেও অ্যামাজন এর প্রোডাক্ট বিক্রি করে কমিশন দ্ধার আয় করা যায়। 

আপনার কাছে যদি হাই রিচ বা খুব জনপ্রিয় কোন ওয়েবসাইট থাকে যেখানে প্রতিদিন ১০০০ বার ভিজিট করা হয় সেই সাইট আপনি ৩০০০০ টাকায় বিক্রি করে আয় করতে পারবেন। 

Advertisement

এরকমই ভিন্ন ভিন্ন ওয়েবসাইট থেকে আয় করার উপায় রয়েছে। যার ফলে আপনি একটি ভালো সংখ্যক টাকা আয় করতে পারেন। কিন্তু সবগুলো ওয়েবসাইটে আয় করার উৎস থাকেনা। প্রত্যেক সাইটে আয় করার মাধ্যম ভিন্ন ভিন্ন হয়ে থাকে। আবার কিছু সাইট আছে যে সাইট দ্ধারা আয় করাই যায় না। 

আপনি আরো জানতে পারেন: অনলাইন ইনকাম করার সহজ উপায় গুলো

Advertisement

ব্লগ ওয়েবসাইট কি বা নিউজ ওয়েবসাইট কি: 

ব্লগ সাইট বা নিউজ সাইট হচ্ছে যেই সাইটে প্রতিদিনই বিভিন্ন কন্টেন্ট ছারতে হয়। আপনারা জেই সাইটে লেখাটি দেখছেন সেটিও ব্লগ সাইট। আবার কিছু সাইট আছে যেখানে প্রতিদিন কি ঘটনা হচ্ছে তা প্রকাশ করা হয়। কিন্তু সে সকল সাইট দ্ধারা ভালো অংকের টাকা আয় করা যায় অ্যাড এর মাধমে। আর নিউজ সাইটে প্রতিদিনই ৫/২০ টা পর্যন্ত পোস্ট করতে হয়। আপনি যত বেশি জনপ্রিয় নিউজ দিবেন মানুষ তত বেশি আপনার সাইটে ঢুকবে এবং নিউজ দেখবে। তার ফলে আপনার অ্যাডও তারা দেখবে সেখান থেকে অংকের টাকা উপার্জন করতে পারবে। ব্লগ সাইট আর নিউজ সাইট থেকেই বেশি টাকা আয় করা সম্ভব। 

প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইট কি :

নিজের ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের জন্য যেই সাইটগুলো আছে তাকে প্রতিষ্ঠানের সাইট বলা হয়। যেখানে সেই কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠানের বিস্তারিতও তুলে ধরা হয়। যেখানে কোম্পানি অফিস ঠিকানা থেকে শুরু করে তারা কি বিক্রি করে তাও উল্লেখ থাকে। বলা চলে কোম্পানির সাইটটি একটি কোম্পানি প্রোফাইল হিসেবে কাজ করে থাকে। যেখানে আপনি সকল তথ্য উলেখ করে রাখতে পারবেন। আপনার প্রোডাক্ট সম্পর্কে মানুষ এই সাইট থেকে ধারণা পাবে। এই সাইট দ্ধারা গুগুল অ্যাড দ্ধারা আয় করা সম্ভব না। 

Advertisement

ই-কমার্স ওয়েবসাইট কি : 

যেই সাইট দ্ধারা কোন কিছু বিক্রি করা হয় তাকে ই-কমার্স সাইট বলা হয়। ই-কমার্স সাইট আপনি তখনি খুলবেন যখন আপনি অনলাইন ব্যবসা শুরু করবেন। ই-কমার্স সাইটে কোন প্রকার গুগুল অ্যাড দ্ধারা আয় করা সম্ভব না। আপনার পণ্য বিক্রি করেই আপনাকে আয় করতে হবে। আপনি এই সাইটে যত খুশি পণ্য সাজিয়ে রাখতে পারবেন যেখান থেকে কাস্টমার কিনবে সেটি থেকে একটি অংকের লাভ আপনি পাবেন। 

ব্যাক্তিগত ওয়েবসাইট কি:  

ব্যাক্তিগত ওয়েবসাইট হচ্ছে যেখানে আপনার নাম দিয়ে সাইটটি থাকবে। যেই সাইটে আপনার সম্পর্কে বিস্তারিতও ভাবে তুলে ধরা হবে। এই সাইট কেও ঢুকলে আপনার পরিচিতি জানতে পারবে। আর কি আপনার ব্যাক্তিগত সকল তথ্য। এই সাইট দ্ধারা আপনি অ্যাড দ্ধারা আয় করতে পারবেন না। আপনাকে এই সাইট আপনার পার্সোনাল বাইওডাটা হিসেবে ব্যবহার করতে হবে। 

Advertisement

আপনি আরো জানুন: কিওয়ার্ডকি | কিওয়ার্ড রিসার্চ কি | কিওয়ার্ড রিসার্চ কিভাবে করতে হয়, ডিজিটাল মার্কেটিং কি

Advertisement

ইতিমধ্যে আপনারা বোঝতে পেরেছেন সব সাইট দ্ধারা গুগুল অ্যাড দ্ধারা আয় করা সম্ভব না। তাই আপনাকে আপনার চাহিদা অনুযায়ী একটি সাইট তৈরি করতে হবে। যা আপনার কাজকে সহজ করবে। 

Advertisement
Continue Reading
Advertisement
1 Comment

1 Comment

  1. Pingback: ফ্রিল্যান্সিং কি | ফ্রিল্যান্সিং কেন করব - Amir info Bangla

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Advertisement

Trending